গফরগাঁও টু দেওয়ানগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী ও ভাড়ার তালিকা

গফরগাঁও টু দেওয়ানগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী ও ভাড়ার তালিকা

এই পোস্টে গফরগাঁও থেকে দেওয়ানগঞ্জগামী যাত্রীদের জন্য গফরগাঁও টু দেওয়ানগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচি ও ভাড়ার তালিকা প্রকাশ করা হলো। আপনার জন্য সেরা সুরক্ষিত ভ্রমণ নিশ্চিত করতে আমাদের কাছে কিছু সুরক্ষা টিপস রয়েছে।

গফরগাঁও টু দেওয়ানগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচি (আন্তঃনগর)

গফরগাঁও থেকে দেওয়ানগঞ্জ এর দূরত্ব প্রায় ১৫৩ কিলোমিটার এবং ভ্রমণ করতে ৫-৮ ঘন্টা বা তার বেশি সময় লেগে যায়। ট্রেন এই রুটের সবচেয়ে নিরাপদ পরিবহণ। গফরগাঁও থেকে দেওয়ানগঞ্জ রুটে তিস্তা এক্সপ্রেস (৭০৭) ও ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস (৭৪৩) নামে মোট দুটি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করে। নিচে তিস্তা এক্সপ্রেস (৭০৭) ও ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস (৭৪৩) ট্রেন গফরগাঁও স্টেশন থেকে ছাড়ার সময় এবং দেওয়ানগঞ্জ স্টেশনে পৌছানোর সময়সূচি দেওয়া হলোঃ

ট্রেনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
তিস্তা এক্সপ্রেস(৭০৭) সোমবার ০৯ঃ২৮ ১২ঃ৪০
ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস(৭৪৩) নাই ২০ঃ১২ ২৩ঃ৫০

গফরগাঁও টু দেওয়ানগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী (মেইল এক্সপ্রেস)

গফরগাঁও থেকে দেওয়ানগঞ্জ রুটে দেওয়ানগঞ্জ কমিউটর (৪৭), জামালপুর কমিউটর (৫১) ও ভাওয়াল এক্সপ্রেস (৫৫) নামে মোট তিনটি মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল করে। নিচে দেওয়ানগঞ্জ কমিউটর (৪৭), জামালপুর কমিউটর (৫১) ও ভাওয়াল এক্সপ্রেস (৫৫) ট্রেন গফরগাঁও স্টেশন থেকে ছাড়ার সময় এবং দেওয়ানগঞ্জ স্টেশনে পৌছানোর সময়সূচি দেওয়া হলোঃ

ট্রেনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
দেওয়ানগঞ্জ কমিউটর(৪৭) নাই ০৮ঃ০৭ ১১ঃ৪০
জামালপুর কমিউটর(৫১)  নাই ১৭ঃ৫৯ ২২ঃ১৫
ভাওয়াল এক্সপ্রেস(৫৫)  নাই ২৩ঃ৫৫ ০৫ঃ৪০

গফরগাঁও টু দেওয়ানগঞ্জ ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

নিচে গফরগাঁও থেকে দেওয়ানগঞ্জগামী বিভিন্ন আন্তঃনগর ও মেইল এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিটের মূল্য দেওয়া হলোঃ

আসন বিভাগ টিকিটের মূল্য
শোভন ১২০ টাকা
শোভন চেয়ার ১৪৫ টাকা
প্রথম আসন ১৯৫ টাকা
প্রথম বার্থ ২৯০ টাকা
স্নিগ্ধা ২৭৬ টাকা
এসি ৩৩৪ টাকা
এসি বার্থ  ৪৯৫ টাকা

একজন শীতাতপ শ্রেণীর যাত্রী ৫৬ কেজি, প্রথম শ্রেণীর যাত্রী ৩৭.৫ কেজি, শোভন শ্রেণীর যাত্রী ২৮ কেজি এবং সুলভ ২য় শ্রেণীর যাত্রী ২৩ কেজি মালামাল বিনা ভাড়ায় সঙ্গে নিয়ে যেতে পারেন। অতিরিক্ত মালামাল মাশুল পরিশোধ করে তা লাগেজ হিসেবে তার নিজ গন্তব্যে নিতে পারেন। বড় স্টেশনগুলোতে লাগেজ বুকিংয়ের জন্য আলাদা কাউন্টার রয়েছে। লাগেজ বহনের জন্য ট্রলির ব্যবস্থা আছে। অসুস্থ ব্যাক্তিদের বহনের জন্য হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা আছে। এছাড়া বাংলাদেশের সকল ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়া জানতে আমাদের সাইটের অন্যান্য আর্টিকেল পড়তে পারেন।

You May Also Like

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।